মে’য়ে ‘বাউন্ডুলে’। তাই ১৬ বছর বয়সী কি’শোরী মে’য়ের পায়ে বছরখানেক ধরে শিকল বেঁধে তাকে আ’ট’কে রেখেছেন মা।ঘটনাটি ঘটেছে ভা’রতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়িতে। যেখানে মে’য়েদের নিরাপত্তার অভাবে এভাবেই পায়ে শিকল পড়ান মা।জানা গেছে, মে’য়েটি খুবই সহ’জ সরল।

এই সুযোগ নিয়ে যদি কেউ তুলে নিয়ে গিয়ে ধ’র্ষণ করে- এই ভ’য় থেকেই মে’য়েকে শিকলব’ন্দি করেছেন লক্ষ্মী বণিক।আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদন বলছে, মে’য়েকে নিয়ে বাড়িতে একাই থাকেন লক্ষ্মী। তার ধারণা, কেক-চকলেট খেতে ভালোবাসে মে’য়ে। খাবারের লো’ভ দেখিয়ে বা ঘুরতে যাওয়ার টোপ দিয়ে মে’য়েকে ভুলিয়ে নিয়ে যেতে পারে যে কেউ।

সেই আশ’ঙ্কায় পায়ে বেড়ি পরিয়েছেন তিনি। লক্ষ্মীর ছোট একটি দোকান আছে। সেই দোকানে তাকে প্রায় সারাদিনই থাকতে হয়। একলা মে’য়েকে তখন বাড়িতেও রাখতে সাহস পান না তিনি। শিকল-পরা অবস্থাতেই সঙ্গে করে নিয়ে যান দোকানে।

আবার সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরে আসেন মে’য়েকে নিয়ে।সন্ধ্যায় কিছু সময় শিকল খুলে রাখেন। রাতে শুতে যাওয়ার আগে ফের শিকল পরিয়ে দেন মে’য়ের পায়ে।লক্ষ্মী জানান, ধ’র্ষণ বা যৌ’ন হেনস্থার শিকার হওয়ার ভ’য়েই তিনি মে’য়ে বাড়িতে বেঁধে রাখেন।

মে’য়ে একটু সহ’জ-সরল। কিছুটা বোকাও। হুটহাট করে মে’য়ে বাইরে চলে গেলে তার ভ’য় হয়। চারপাশে যে ভাবে ধ’র্ষণ আর যৌ’ন নি’র্যাতনের খবর শুনছেন, তাতে তার আতঙ্ক আরও বাড়ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here