ট্রা’ম্পের ভা’রত সফর চলাকালীনই রণক্ষেত্র হয়ে উঠল দিল্লির মৌজপুর। এনআরসি-সিএএ সম’র্থক ও বিরোধীদের মধ্যে সং’ঘর্ষ শুরু হয়। কবীরনগর ও ভজনপুরায় ইট বৃষ্টি ও পেট্রোল পাম্পে আ’গুন লাগিয়ে দেওয়া হয়।

পাল্টা কাঁদানে গ্যাস ও লা’ঠিচা’র্জ করে পু’লিশ। জানা গেছে, এই সং’ঘর্ষে একজন পু’লিশকর্মীর মৃ’ত্যু হয়েছে এবং ডিসিপি গুরুতর আ’হত হয়েছে। আজ সেমাবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।

বি’ক্ষোভকারীদের ছোড়া ইটের আ’ঘাতে গুরুতর চোট পান রতনলাল। তখনই তাঁকে হাসপাতা’লে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতা’লে নিয়ে গেলে তাঁকে মৃ’ত বলে ঘোষণা করা হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাই’রাল হওয়া একটি ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে এক বি’ক্ষোভকারী পু’লিশের দিকে ব’ন্দুক নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন।

কবীরনগর ও ভজনপুরায় ইট বৃষ্টি ও পেট্রোল পাম্পে আ’গুনও লাগিয়ে দেওয়া হয়। পাল্টা কাঁদানে গ্যাস ও লা’ঠিচার্জ করে পু’লিশ। জানা যাচ্ছে সং’ঘর্ষে একজন ডিসিপিও গুরুতর আ’হত। এ খবর দিয়েছে ভা’রতীয় গণমাধ্যম কলকাতা২৪।

পরিস্থিতি দেখে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজ’রিওয়াল টুইট করেছেন, দিল্লির বিভইন্ন এলাকায শান্তি ও সম্প্রীতি ব্য়াহত হচ্ছে। আমি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীকে সম্প্রীতি বজায় রাখার উদ্যোগ নেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here