ব্রিটিশ মু’সলিম নাগরিক ফরিদ ফায়েদি। শান্তির বাণী ছড়িয়ে দিতে এবং মু’সলিম যুবকদের ভেতর সচেতনতা তৈরির জন্য হেঁটে হ’জ করার ঘোষণা দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘একজন মু’সলিম হিসেবে আমি বিশ্বা’স করি বিশ্বের প্রত্যেক মু’সলমান ইস’লামের একেক জন প্রতিনিধি।

ইস’লাম ও মু’সলমানকে সুন্দরভাবে পৃথিবীর সামনে উপস্থাপন করা সবার দায়িত্ব। ইস’লাম মানুষকে শান্তির পথে আহ্বান জানায়। ইস’লাম শব্দের ধাতুতেই শান্তির অর্থ রয়েছে।ফরিদ ফায়েদি ২০১৯ সালের ৩ নভেম্বর পদযাত্রা শুরু করেন এবং আগামী জুলাই মাসে ম’ক্কায় পৌঁছানোর ইচ্ছা তাঁর।

সেখানে তিনি পবিত্র হ’জ পালন করবেন। প্রথমে তিনি সাইকেলে ম’ক্কার উদ্দেশে যাত্রা করতে চাইলেও পরবর্তীতে তাঁর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন। ফায়েদি বলেন, ‘৩ নভেম্বর আমা’র যাত্রা শুরু হয়। আমি আগেও অনেক ভ্রমণ করলেও এই জাতীয় ভ্রমণের কোনো অ’ভিজ্ঞতা আমা’র নেই। আমি খুবই আবেগাপ্লুত ছিলাম।’

ফরিদ ফায়েদি ইতিমধ্যে ৪০০০ কিলোমিটার পথ অ’তিক্রম করে বর্তমানে ইস্তাম্বুল রয়েছেন এবং ম’ক্কায় পৌঁছাতে আরও ২৭ হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হবে তাঁকে। ফরিদি তাঁর দীর্ঘ পদযাত্রার মাধ্যমে পৃথিবীর ক্যান্সার রোগীদের পক্ষে গণসচেতনতা তৈরি করতে চান। তিনি জানান, ‘আমি কিডনি ক্যান্সারে আক্রান্ত একজন মানুষ।

আমি একটি কিডনি নিয়ে বেঁচে আছি। এরপরও আমি প্রতিদিন ৬০ কিলোমিটার হাঁটি। আল্লাহর অনুগ্রহ ছাড়া আমি এত দূর পৌঁছাতে পারতাম না এবং তাঁর অনুগ্রহ ছাড়া ম’ক্কাতেও পৌঁছাতে পারব না।

পৃথিবীর পবিত্রতম স্থানে আমা’র ক’ষ্ট’কর যাত্রা সার্থক হবে যদি আমি মানুষের কাছে এই বার্তা পৌঁছাতে পারি যে, ইস’লাম শান্তির ধ’র্ম, মু’সলিম’রা শান্তিপ্রিয় এবং মু’সলিম যুবকদের ইস’লামের পক্ষে শান্তিপূর্ণভাবে কাজ করার অনুপ্রেরণা জোগাতে পারি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here