সালিশি বৈঠকে ডেকে নিয়ে পু’লিশের এএসআই বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো কর্তৃক দুই ভাইকে কু’পিয়ে গু’রুতর আ’হত করার প্র’তিবাদে কক্সবাজারে বিশাল মা’নববন্ধন হয়েছে। রোববার সকাল ১১ টায় কক্সবাজার জে’লা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মুখ চত্বরে ‘কক্সবাজার বিক্ষুদ্ধ সচেতন নাগরিক সমাজ’র ব্যানারে এই মা’নববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মা’নববন্ধনে বক্তব্য রাখেন সৈয়দুল হক মুরাদ, আব্দুল্লাহ আল আরমান, কামরুল হাসান ও মোহাম্মদ তারেক। মা’নববন্ধনে বক্তাগণ বলেন, মুজিব বর্ষের অ’ঙ্গীকার পু’লিশ হবে জনতার এই শ্লোগানকে বৃ’দ্ধাঙ্গু’লি দেখিয়েছে হা’মলাকারী পু’লিশের এএসআই ভুট্টো। তারা ভুট্টোর দৃষ্টান্তমূলক শা’স্তির দাবী জানান।

বি’ক্ষো’ভে বক্তারা বলেন, পারিবারিক জমিজমার বি’রোধ নিয়ে দুই পক্ষের আত্মীয় স্বজনের মধ্যে সালিশ মীমাংসার বৈঠক চলছিল। মান্যগণ্য ব্যক্তিদের মধ্যস্ততায় চলমান বৈঠকে প্রতিপক্ষের অতর্কিত স্বশস্ত্র হা’মলা, কুপাঘাতে গু’রুতর র’ক্তাক্ত হন হাফেজ আবু দারদা ও আব্দুল্লাহ আল নোমান। ব্যাপক মা’রধর করা হয় অপর সহোদর কামরুল হাসান ও তাদের মা রহিমা আক্তারকে।

কাপড়চোপড় টানা হেছড়া ও শ্লী’লতাহা’নির মতো ঘটনাও ঘটানো হয়। ন্যাক্কারজনক ঘটনা প্রত্যক্ষ করেছে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় উল্টো আ’হতদের বি’রুদ্ধে মা’মলা দেয়া হয়েছে। যে মা’মলার আ’সামি হন কুপাঘাতে ক্ষতবিক্ষত হাফেজ আবু দারদা ও আব্দুল্লাহ আল নোমানসহ পরিবারের ৭ সদস্য।

প্রধান অ’ভিযুক্ত পু’লিশ কর্মকর্তা বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টুর স্ত্রী রেহেনা পারভীন বাদি হয়ে চকরিয়া থানায় মা’মলাটি দা’য়ের করেন। যার থানা মা’মলা নং-২৫/২০২০।অপরদিকে, এ ঘটনায় ভি’কটিম আবদুল্লাহ আল নোমানের ছোট ভাই ছাত্রলীগ নেতা আবদুল্লাহ আল আরমান বাদি হয়ে চকরিয়া থানায় মা’মলা করেছেন।

যার নং-২৪/২০২০। এ মা’মলায় এএসআই বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টসহ ৯জনকে এজাহারভুক্ত আ’সামি করা হয়েছে। মা’মলা নিয়ে পু’লিশের আচরণ ও ভূমিকা ‘র’হস্যজনক’ মন্তব্য করেছে ভি’কটিম পরিবারের সদস্যরা। তবে, দুই পক্ষের দা’য়েরকৃত মা’মলা সঠিকভাবে ত’দন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান চকরিয়া থানার ওসি মো. হাবিবুর রহমান।

এদিকে, একজন পু’লিশ কর্মকর্তা হিসেবে সরাসরি আইন ভঙ্গ করা মা’রাত্মক চোখে দেখছে স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রধানমন্ত্রীর অর্জন ও সুনামকে ক্ষুণ্ন করতে এরকম দু’একজন সরকারী সদস্যই যথেষ্ট মন্তব্য এলাকাবাসীর।

উল্লেখ্য,গত ১৭ ফেব্রুয়ারী চকরিয়ার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের বৈরাগীরখীল গ্রামে বসত ভিটার বি’রোধের জেরে সালিশি বৈঠকে এএসআই বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো কু’পিয়ে আ’হত করে তার আপন দুই মামাত-ফুপাত ভাই হাফেজ আবু দারদা ও আব্দুল্লাহ আল নোমানকে। বেপরোয়া দা’য়ের কো’পে দুই ভাইয়ের হাত ও ঘাড়ের রগ কে’টে যায়। তাদেরকে মুমূর্ষ অবস্থায় কক্সবাজার জে’লা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনায় আ’হতের ভাই আব্দুল্লাহ আল আরমান বা’দী হয়ে রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি থানায় কর্মরত এএসআই বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টোকে ১নং আ’সামি করে চকরিয়া থানায় ৮ জনের বি’রুদ্ধে মা’মলা দা’য়ের করেছে। বর্তমানে অ’ভিযুক্ত এএসআই বখতিয়ার উদ্দিন ভুট্টো প্রেশনে উখিয়ার ময়নাঘোনা রো’হিঙ্গা ক্যাম্পে দায়িত্ব পালন করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here